পরীমনির অ’ভিনয়ে আমি বড় ধরণের ক্ষতিগ্রস্থ হলাম: নাসির

হস্পতিবার ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্তিলাভের পর শনিবার (০৩ জুলাই) বিকালে গণমাধ্যমের সাথে মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি এই কথা বলেন।নাসির উদ্দিন মাহমুদ বলেন, একজন সেলিব্রিটির অ’ভিনয়ে আমি সামাজিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গেলাম। আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি হলের নির্বাচিত জিএস ছিলাম। ঢাকার প্রথম বিভাগের ফুটবলার ছিলাম।

উত্তরা ক্লাবের তিনবার সভাপতি ছিলাম।একজন ব্যবসায়ী। আমাকে আ’ট’ক করার পরও কেউ আমা’র বি’রুদ্ধে কোনো অ’ভিযোগ করেননি।তিনি আরও বলেন, বড় রকমের ভিকটিম হলাম। কোনো দিন হাজত দেখিনি। রি’মান্ডে ১২ দিনসহ ১৮ দিন জে’ল-হাজতে কাটিয়েছি। সত্যিকারে অন্যায় করলে আফসোস ছিল না। আশা করি ত’দন্তকারী সংস্থা সঠিক বিষয়টি তুলে আনবে।এসময় তিনি তার বি’রুদ্ধে আনীত সকল অ’ভিযোগ অস্বীকার করেন।সেলিব্রেটির অ’ভিনয়ে আমি বড় ধরণের ক্ষতিগ্রস্থ হলাম: নাসির গত ১৩ জুন পরীমনির দায়ের করা মা’মলার পর নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী’ অমিকে উত্তরার একটি বাসা থেকে মা’দক এবং ৩ নারীশ গ্রে’ফতার করে ডিবি পু’লিশ। একইদিন তাদের নামে বিমানবন্দর থা’নায় মা’দক নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মা’মলা দায়ের করে পু’লিশ। তাদেরকে গ্রে’ফতারের দিন সকালেই সাভা’র থা’নায় পরীমনি একটি মা’মলা দায়ের করেন।