নৌকায় মাত্র ৫ ভোট এটায় বাস্থবতা

বরগুনার বুড়িরচর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে একটি কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকে মাত্র পাঁচটি ভোট পড়েছে। ভোটের এমন ফল দেখে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। কেন্দ্রটি হচ্ছে মধ্য বুড়িরচর কেন্দ্র। এ কেন্দ্রটি স্বতন্ত্র প্রার্থী হুমায়ুন কবীরের বাড়ির কাছে।এ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান। উপজেলা সভাপতির এমন ফলাফলে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

সোমবার দেশের ২০৪টি ইউনিয়নের মতো বরগুনার বুড়িরচর ইউনিয়নেও মোট ১১টি কেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ হয়।স্বতন্ত্র প্রার্থী হুমায়ুন কবীরের বাড়ির কাছে মধ্যবুড়িরচর কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ২ হাজার ৩৯১টি। এর মধ্যে হুমায়ুন কবীর আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ২ হাজার ৩৮৩ ভোট। এই কেন্দ্রে মাত্র ৫টি ভোট পড়েছে নৌকায়। বাকি ৩টি ভোট পড়েছে হাতপাখা প্রতীকে।

নৌকার প্রার্থী সিদ্দিকুর রহমান বলেন, কেন্দ্রটি স্বতন্ত্র প্রার্থী হুমায়ুন কবীরের নিজ বাড়ির এলাকায়। হুমায়ুন কবীর নির্বাচনের শুরু থেকেই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে এলাকায় ভীতির সৃষ্টি করেছেন। ভোটের দিন তিনি নৌকার এজেন্টদের ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রভাব বিস্তার করে ওই কেন্দ্রে প্রচুর জাল ভোট আদায় করেছেন। এর বড় প্রমাণ কেন্দ্রে মোট ২ হাজার ৬০০ ভোটের ২ হাজার ৩৯৩ ভোট কাস্ট হওয়া।এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বিজয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থী হুমায়ুন কবীর বলেন, আমার এলাকার কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি নিশ্চিত করেছি আমি। এ কারণে বেশি ভোট কাস্ট হয়েছে। ভোটাররা নৌকায় যে ভোট দিয়েছেন, তিনি তাই পেয়েছেন। এখানে কোনো জাল ভোট পড়েনি; প্রভাব বিস্তারের ঘটনাও ঘটেনি। নৌকার প্রার্থীর বাড়ির কাছের কেন্দ্রেও তো আমি নামমাত্র ভোট পেয়েছি।