হাসপাতালে নকল মাস্ক সরবরাহের মামলায় গ্রেপ্তার সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রী শারমিন জাহান

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নকল মাস্ক সরবরাহের মামলায় গ্রেপ্তার সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রী শারমিন জাহানকে অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশ করেছে পুলিশ।আজ মঙ্গলবার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা ও শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নিজাম উদ্দিন বিষয়টি এনটিভি অনলাইনকে নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, সম্প্রতি ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক মোর্শেদ হোসেন খান তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। তদন্ত প্রতিবেদনে এ মামলায় গ্রেপ্তার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা ও সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রী শারমিন জাহানকে অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশ করেন।

গত বছরের ২৪ জুলাই রাত সোয়া ১০টার দিকে শারমিন জাহানকে শাহবাগ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।মামলার নথি থেকে জানা গেছে, নকল মাস্ক সরবরাহের ঘটনায় ২৩ জুলাই সন্ধ্যায় অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনালের স্বত্বাধিকারী শারমিন জাহানের বিরুদ্ধে মামলা করেন বিএসএমএমইউয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মোজাফফর আহমেদ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন-১ শাখায় সহকারী রেজিস্ট্রার হিসেবে কর্মরত শারমিনের মালিকানাধীন অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল গত বছরের ২৭ জুন বিএসএমএমইউতে ১১ হাজার মাস্ক সরবরাহের কার্যাদেশ পায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজে স্নাতকোত্তর শারমিন ২০০২ সালে ছাত্রলীগের বাংলাদেশ কুয়েত মৈত্রী হল শাখার সভাপতি নির্বাচিত হন। আওয়ামী লীগের গত কমিটিতে তিনি মহিলা ও শিশুবিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহসম্পাদক ছিলেন। বর্তমান কমিটিতে কোনো পদ না পেলেও দলের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে জড়িত। পরে শারমিনকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বরখাস্ত করা হয়।শারমিন ২০১৬ সালের ৩০ জুন স্কলারশিপ নিয়ে চীনের উহানের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যান। গত ২৩ জানুয়ারি থেকে উহানে লকডাউন শুরু হলে তিনি দেশে ফিরে আসেন। এর মধ্যে চীনে থাকা অবস্থায় ২০১৯ সালের মার্চে অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল নামে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান গড়ে নিজের ব্যবসা শুরু করেন।